বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ে আজও শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ

বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক ও প্রশাসনিক কার্যক্রম চালুর ঘোষণার পরও, শিক্ষার্থীরা তা প্রত্যাখ্যান করে আন্দোলন কর্মসূচি চালিয়ে যাচ্ছেন। আজ সোমবার সকালে, ক্লাস ও পরীক্ষা বর্জন করে শিক্ষার্থীরা বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক ভবনের প্রধান ফটক বন্ধ করে অবস্থান কর্মসূচি পালন করেন।

উপাচার্যর পদত্যাগের দাবিতে বেলা পোনে ১১টায় তারা বিশ্ববিদ্যালয়ের সামনে বরিশাল-পটুয়াখালী মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করে। এ সময় শিক্ষার্থীরা জানায়, উপাচার্যের পদত্যাগ বা ছুটিতে যাওয়ার বিষয়টি লিখিত আকারে না পাওয়া পর্যন্ত তারা আন্দোলন চালিয়ে যাবেন।

এর আগে, শনিবার রাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার ড. হাসিনুর রহমান স্বাক্ষরিত লিখিত এক নোটিশে রবিবার সকাল থেকে ক্লাস ও পরীক্ষাসহ যাবতীয় কার্যক্রম চালুর ঘোষণা দেয়া হয়।

প্রসঙ্গত, প্রতি বছর স্বাধীনতা দিবসে পছন্দের মানুষদের সঙ্গে নিয়ে খাওয়া-দাওয়া ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করেন বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. ইমামুল হক। কিন্তু বরাবরই সেই পছন্দের তালিকা থেকে বাদ পড়েন বিশ্ববিদ্যালয়টির শিক্ষার্থীরা।

কিন্তু, এ বছরের আয়োজনে তাদের সাথে রাখার দাবিতে বিক্ষোভ করে সাধারণ শিক্ষার্থীরা। আর এতে ক্ষুব্ধ হয়ে বিক্ষোভকারী শিক্ষার্থীদের ‘রাজাকারের বাচ্চা’ বলে কটূক্তি করেন উপাচার্য। এরপরই, প্রতিবাদে ক্লাস-পরীক্ষা বর্জন করে উপাচার্যের ক্ষমা চাওয়াসহ পাঁচ দফা দাবিতে বিক্ষোভ করেন শিক্ষার্থীরা।

তবে, শিক্ষার্থীদের নয়, স্বাধীনতা বিরোধীদের উদ্দেশ্য করে একথা বলেছেন বলে জানান ড. ইমামুল হক। পরে, ক্যাম্পাস বন্ধ ঘোষণা করে শিক্ষার্থীদের হল ত্যাগের নির্দেশ দেয় বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। তবে, এই আদেশ উপেক্ষা করে হলেই অবস্থান নিয়ে উপাচার্যকে অবাঞ্চিত ঘোষণা করে তাঁর পদত্যাগের দাবিতে আন্দোলন করেন শিক্ষার্থীরা।

এর আগে, ২০১৭ সালে তাঁর বিরুদ্ধে নিয়োগে অনিয়ম ও অর্থ কেলেঙ্কারির অভিযোগ এনে আন্দোলন করে জেলার সুধী সমাজ। এ বিষয়ে, বরিশাল আইনজীবি সমিতির সাবেক সভাপতি এস এম ইকবাল জানান, ‘তাঁর বিরুদ্ধে বিভিন্ন রকম অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ ছিল।’

এদিকে, ২০১৭-১৮ এবং ১৮-১৯ অর্থবছরে উপাচার্য ও তৎকালীন ট্রেজারারের বিরুদ্ধে ৫০ লাখ টাকা আত্মসাৎ ও ২৫ লাখ টাকা ক্ষতিসাধনের দাবি করে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের অডিট কমিটি। তবে, এসব অভিযোগ ষড়যন্ত্র বলে দাবি করেছেন উপাচার্য ড. ইমামুল হক।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: